গরুর সঙ্গে শক্রুতা

0
289

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে এক কৃষকের বাড়িতে মজুদ রাখা ঘাঁসে বিষ দিয়েছে দুর্বৃত্তরা। সেই ঘাঁস খেয়ে ওই কৃষকের পাঁচটি গরু অসুস্থ হয়ে পড়েছে।

সোমবার সকালে উপজেলা বাগুলাট ইউনিয়নের শালঘর মধুয়া গ্রামের কৃষক আইয়ুব আলীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। কৃষকের দুটি গরু বেশী অসুস্থ হয়ে স্থানীয় কসাইয়দের কাছে বিক্রি করা হয়। বাকী তিনটি গরু কুষ্টিয়া প্রাণী সস্পদ হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

তিগ্রস্থ কৃষককের স্বজনরা জানান, পূর্ব শক্রুতার জেরে দুবৃত্ত¡রা রাতের আধাঁরে ঘাঁসে বিষ দিয়েছিল।

কৃষকের ছেলে রুবেল হোসেন বলেন, তিনি পাঁচটি গরুর জন্য রাতে ঘাঁস কেটে বাড়ির আঙিনায় রেখেছিলেন। প্রতিদিনের মতো সোমবার সকালে গরু গুলোকে ওই ঘাঁস খেতে দিয়েছিলন তাঁর মা। ঘাঁস খেয়ে তাঁদের পাঁচটি গরুই অসুস্থ হয়ে পড়ে। তার মধ্যে দুইটির ষাঁড় গরুর অবস্থা বেশি খারাপ হলে স্থানীয় কসাইয়দের কাছে মাত্র ৮০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছেন। যা আগামী কুরবানি ঈদে প্রায় এক ল ১০ থেকে ২০ হাজার টাকায় বিক্রি করা যেত।

তিনি আরো বলেন, অসুস্থ বাঁকী দুইটি গাভী ও একটি বাছুর গরু কুষ্টিয়া প্রাণীসস্পদ হাসপাতালে নিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হয়েছে।

কুমারখালী থানা পুলিশের উপ-পরিদর্শক মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, তিনি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। অবশিষ্ট তিনটি গরু এখন সুস্থ আছে। অভিযোগ পেলে তদন্তু করে ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন বলে জানান।

উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডা. নূরে আলম সিদ্দিকী বলেন, ঘাঁসের সাথে বিষ জাতীয় কোনো উপাদান থাকায় এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে। তিনি তিগ্রস্থ কৃষকের গরু গুলোর খোঁজ খবর নিয়েছেন।