খোকসায় গ্রামে হামলা পাল্টা-হামলা বাড়ি ভাংচুর

39

স্টাফ রিপোর্টার

কুষ্টিয়ার খোকসার গ্রামে আধিপত্য বিস্তার কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে হামলা পাল্টা হামলা ও বাড়ি ভাংচুরের ঘটনা ঘটেছে।

জানা গেছে, বুধবার দিনগত রাতে উপজেলার কোমরভোগ গ্রামের স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতা ইউপি সদস্য জাবেদ আলী ও নয়ন এর লোকদের মধ্যে বাকবিতান্ডা হয়। এক পর্যায়ে এক পক্ষ প্রতিপক্ষের লোকদের উপর দেশীয় অস্ত্রশ্বস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়।

এ হামলায় শাজাহান আলী (৪৫), আমিরুল ইসলাম (৪০), রাশিদুল সহ দুই পক্ষের ১০ নারী পুরুষ ও শিশু আহত হয়েছেন। শাজাহানের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়েছে।

দুই পক্ষের হামলা পাল্টা হামলা চালিয়ে কয়টি বাড়ি ও দোকান ভাংচুর করেছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানাযায়নি। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে রাতেই গ্রামে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

ওসমানপুর ইউনিয়ন পরিষদের মেম্বর জাবেদ আলী জানান, আগের রাতে দুই পক্ষের লোকদের মধ্যে কথা কাটা কাটি হয়। সে সময় প্রতিপক্ষের নেতার লোক লিটন মাষ্টার হামলা করার ঘোষনা দেয়। সেই ঘোষনা মাফিক বৃহস্পতিবার দুপুরে প্রতিপক্ষ তার লোকদের বাড়িতে ইট-পাটকেল ছুড়তে থাকে। রাতে লিটন মাষ্টারের নেতৃত্বে হামলা করা হয়। এসময় প্রতিক্ষ তার লোকদের ৫টি বাড়িতে ভাংচুর করেছে বলে মেম্বর দাবি করেন।

প্রতিপক্ষে নেতা নয়নের সাথে কথা বলার জন্য চেষ্টা করা হয়। কিন্তু তাকে পাওয়া যায়নি। তবে লিটন মাষ্টারের সাথে কথা বলা হয়। তিনি ঘটনা সম্পর্কে জানেন না বলে দাবি করেন।

থানা ভারপাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, ঘটনা স্থলে পুলিশ উপস্থিত আছে। এখন অভিযোগ পেলে মামলা হবে।

Print Friendly, PDF & Email