হুড়োহুড়িতে পদদলিত হয়ে ৬ জনের প্রাণ গেল

35
নিহত এক নারীর সন্তানের আর্তনাদ ছবি সংগ্রহ

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া মাদারীপুরের বাংলাবাজার ঘাটে নোঙর করা ফেরি থেকে নামার সময় পদদলিত হয়ে মহিলা ও কিশোরসহ ছয়জন মারা গেছেন। এ ঘটনায় ২৫ জনের বেশী গুরুতর আহত হয়েছে।

বুধবার শিমুলিয়া থেকে বাংলাবাজার যাওয়ার পথে শাহ পরান ও এনায়েতপুরী নামের দুইটি ফেরিতে এই দুর্ঘটনা ঘটে। এরমধ্যে শাহ পরানে একজন ও এনায়েতপুরীতে পাঁচজন মারা যান।

শিবচর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিরাজ হোসেন জানান, মাদারীপুরের বাংলাবাজার ও মুন্সিগঞ্জের শিমুলিয়া নৌপথে চলাচলকারী ফেরি এনায়েতপুরী থেকে নামতে গিয়ে বেলা ২টার দিকে পদদলিত হয়ে দুই নারীসহ চারজন মারা যান। এর আগে দুপুর ১২টার দিকে শাহ পরান ফেরিতে পদদলিত হয়ে এক কিশোরের মৃত্যু হয়।

শিমুলিয়া থেকে প্রায় তিন হাজার যাত্রী নিয়ে শাহ পরান ফেরি বাংলাবাজার ঘাটের উদ্দেশ্যে রওনা হয়। দুপুর ১২টার দিকে ফেরিটি ঘাটে পৌঁছালে ৩ নম্বর পন্টুনে নোঙর করে। এসময় যাত্রীরা তারাহুরো করে নমতে গেলে আনছার মাতবর (১২) নামের এক কিশোর মারা যায়। সে শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় কালিকাপ্রসাদ গ্রামের গিয়াস উদ্দিন মাতবরের ছেলে। আনছার পরিবারের সাথে ঢাকা থেকে গ্রামের বাড়িতে ফিরছিল। এ রিপোট লেখা পর্যন্ত নিহত পাঁচজনের পরিচয় নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

Print Friendly, PDF & Email