উদোম শরীরে করোনার টিকা দিয়ে আলোচনায় ইপিআই কর্মী

7

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

উদোম ঘমার্ক্ত শরীর। পরনে শুধু প্যান্ট। মাঝে মধ্যে চেয়ারে বসে ধুমপান করছেন। আর এভাবে নারীদের শরীরে দিচ্ছেন করোনার টিকা।

রবিবার দুপুরে এমনই চিত্র দেখা গেছে ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে। টিকাদান কেন্দ্রে নারী পুরুষের কোন আলাদা বুথ নেই। এই সুযোগে মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) শহিদুল ইসলামকে উদোম শরীরে নারীদের টিকা দিতে দেখা যায়। এ ঘটনায় অনেক নারী বিব্রতকর অবস্থায় পড়েন। টিকা দেয়া শেষে অনেক নারীকে বলতে শোনা যায় সরকারি হাসপাতালে এভাবে খালি শরীরে টিকা দেওয়া এর আগে কখনো দেখি নি।

হাসপাতালের কর্মচারীরা জানান, সকাল সাড়ে ১০ টার পর থেকে প্রায় দুপুর ১ টা পর্যন্ত মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) শহিদুল ইসলাম নিজে উদোম শরীরে টিকা প্রদান করেন। এ দৃশ্য প্রতিদিইন দেখা যায়।

টিকা নিতে আসা রিওন হোসেন জানান, একজন সরকারি কর্মচারী কোনভাবেই উদোম শরীরে দায়িত্ব পালন করতে পারেন না। তারপরও নারীদের করোনার টিকা প্রদান ও টিকা কেন্দ্রে বসেই ধুমপান করছেন।

স্বপ্না খাতুন নামে এক নারী জানান, তাকে খালি গায়ে এক ব্যক্তি টিকা দিয়েছেন। এ ঘটনায় তিনি অস্বস্থি মধ্যে পওে যান। একই অভিযোগ রিতা রানী।

কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিকেল টেকনোলজিস্ট (ইপিআই) শহিদুল ইসলাম বলেন, ঘেমে তার শার্ট ভিজে গিয়েছিল। তিনি খুলে রৌদ্রে রেখেছিলেন। এজন্য খালি গায়ে টিকা প্রদান করেছেন। তিনি আরও বলেন, যখন চাপ কম ছিল তখন একটু দুরে বসে সিগারেট ধরিয়ে ধুমপান করছিলাম।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) ডা. অরুন কুমার বলেন, খালি গায়ে বিশেষ করে নারীদের মাঝে দায়িত্ব পালন করার কোন নিয়ম নাই। তাছাড়া পাবলিক স্থানে ধুমপান করার কোন বিধানও নাই। চাকরি বিধি অনুযায়ী যদি তিনি কোন অবহেলা করে থাকেন ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Print Friendly, PDF & Email