খোকসায় ছাত্রী লাঞ্ছনার ঘটনায় সড়ক অবরোধ

0
62
প্রতিবাদে অংশ নেওয়া দুই ছাত্রীর অভিভাক।

স্টাফ রিপোর্টার

কুষ্টিয়ায় খোকসায় একদল স্কুল ছাত্রীর গায়ের মধ্যে মোটর সাইকেল চালিয়েদেওয়া ও লাঞ্ছিত করার প্রতিবাদে সড়ক অবরোধ ও  নৌকা প্রাথীর অফিসে হামলার ঘটনা ঘটেছে।

লাঞ্ছনার শিকার ছাত্রীদেঠ অভিভাবক সুত্রে জানা গেছে, রবিবার বিকাল সাড়ে ৫ টার দিকে মোড়াগাছা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ৫ ছাত্রী পাশের গ্রাম হাসিমপুররে শিক্ষক ফজলুল হকের বাড়ি থেকে প্রাইভেট পঠে ফিরছিল। পথ মধ্যে নৌকা প্রার্থীর কর্মী হত্যা ও মাদক মামলার আসামী সোহেল মোটর সাইকেল দিয়ে ছাত্রীদের পথরোধ করে। এক পর্যায়ে ছাত্রীদের অভিভাবকদের নৌকার ভোট দিতে নির্দেশদেয়। এক পর্যায়ে ছাত্রীরা বাদ সাধলে সোহেল ছাত্রীদের গণ হারে চর-থাপ্পর মারে। সোহেল হাসিমপুর গ্রামের মো: গান্দি শেখের ছেলে।

সন্ধ্যায় খবরটি ছড়িয়ে পরলে বিক্ষুদ্ধ স্থানীয়রা সন্ধ্যা ৭ টার দিকে কুষ্টিয়া রাজবাড়ী সড়ক অবরোধ করে। প্রায় ৩০ মিনিট সড়কটিতে যানচলাচল বন্ধ থাকে। এ সময় ছাত্রী লাঞ্ছনাকারীর চাচা আব্দুর রশিদ ঘটনাটিকে রাজনৈতিক মন্তব্য করায় জনতা তার উপর চড়াও হয়। এক পর্যায়ে বিক্ষুদ্ধ জনতা আওয়ামী লীগের নৌকা মার্কার প্রার্থী আব্দুল মালেকের অফিসে হামলা চালায়। এসময় উপজেলা আওয়ামী লীগর নেতারা ও পুলিশ হামলাকারীদের নিবৃত্ত করে। তবে রাতে এ রিপোট লেখা পর্যন্ত এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছিল। পুলিশ মোতায়েন ছিল।

চেয়ার ছুড়ে মারা হচ্ছে নৌকা প্রার্থীর অফিসে।

ঘটনা স্থলে উপস্থিত এক ছাত্রীর দাদি বৃদ্ধা হালিমা জানান, বিকাল যখন ছাত্রীরা প্রাইভেট পরে বাড়ি ফিরছিল তখন তাদের লাঞ্ছত করা হয়। বৃদ্ধা অভিযোগ করেন সোহেল ৫ ছাত্রীকে চর-থাপ্পর দিয়েছে। তিনি বলেন, মেদের ওড়নাও কেড়ে নেয় ওই লম্পট।

প্রতিবাদে অংশ নেওয়া বৃদ্ধ আব্দুল আজিজ অভিযোগ করেন, লম্পট সোহেলের বিরুদ্ধে আবাসন প্রকল্পের এক যুবককে হত্যার মামলা রয়েছে। রবিবারে লাঞ্চিত ছাত্রীরদের মধ্যে তার ছেলের মেয়েও ছিল। তার গায়েও হাত তুলেছে সোহেল।

নৌকার প্রার্থী আব্দুল মালেকের সাথে কথা বলা সম্ভব হয়নি। তবে তার নির্বাচনের প্রধান সমন্বয়কারী উপজেলা আওয়ামী লীগেকুষ্টিয়ায়র নেতা সালাউদ্দিন মাহামুদ বাটু বিশ্বাস জানান, সোহেলের বিরুদ্ধে অনেক অভিযোগ রয়েছে। ছাত্রী লাঞ্চনার ঘটনা টি সম্পর্কে তার কোন ধারণা নাই। তবে যদি হয়ে থাকে তবে দুঃখ জনক।

ওসি (তদন্ত) মামুনুর রশিদ বলেন, সোহেল মাতাল। ওর বাড়িতে পুলিশ গিয়েছিল। সে বাড়িতে পৌছায় নি। অভিযান অব্যহত আছে। এলাকার পরিস্থিতি শান্ত আছে।