পরিস্থিতি বুঝে এসএসসি-এইচএসসি পরীক্ষা : শিক্ষামন্ত্রী

1
ফাইল ছবি

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

সংক্ষিপ্ত সিলেবাসে বছরের মাঝামাঝি সময়ে এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা থাকলেও করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের বিস্তারের কারণে ‘পরিস্থিতি বুঝে’ সিদ্ধান্ত নেবে শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

সোমবার সচিবালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকদের উদ্বেগের বিষয়টি শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনির কাছে তুলে ধরে ২০২২ সালের পরীক্ষা হবে কী না জানতে চাইলে উত্তরে তিনি এ কথা বলেন।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, এই নতুন বছর ২০২২ সালেও পাবলিক পরীক্ষা আমরা নিতে চাই। সময় মত হবে না এটা খুবই স্বাভাবিক। কারণ শিক্ষার্থীরা সেভাবে কাস করতে পারেনি। আমরা একটা আভাস দিয়েছি যে, হয়ত বছরের মাঝামাঝি আমাদের এখনও চিন্তা তাই। হয়তো কাস করিয়ে বছরের মাঝামাঝি সময়ে সংক্ষিপ্তি সিলেবাসে পরীক্ষা নিতে পারব। এখনও সিদ্ধান্ত সে জায়গায় আছে।

করোনাভাইরাসের অতি সংক্রামক ধরন ওমিক্রন সারা বিশ্বে দ্রুত ছড়িয়ে পড়ছে। দেশেও ২১ জনের সংক্রমণ ধরা পড়েছে। স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের তথ্য অনুযায়ী, এক সপ্তাহে দেশে কোভিড রোগী দ্বিগুণের বেশি বেড়েছে।

এমন পরিস্থিতিতে পরীক্ষার সুনির্দিষ্ট তারিখ দেওয়া সম্ভব নয় জানিয়ে দীপু মনি বলেন, আমরা পর্যবেণ করতে থাকব এবং কাস করাতে থাকব। যখন নেওয়ার মত পরিস্থিতি হবে, তখন আমরা পরীাটা নেব। আশা করি পরীক্ষা নেওয়ার দুই থেকে তিন মাস আগে বলতে পারব, কোন তারিখে পরীক্ষা হচ্ছে। সদিচ্ছা যতই থাকুক, এটাতো আমাদের হাতে নেই।

দেশে করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়ার পর ২০২০ সালের মার্চে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দিয়েছিল সরকার। পরিস্থিতির উন্নতি হওয়ায় ৫৪৩ দিন পর গত ১২ সেপ্টেম্বর আবার শ্রেণিকে ফেরে শিক্ষার্থীরা।

তবে স্কুলে বার্ষিক পরীা না নিয়ে তাদের পরবর্তী শ্রেণিতে তুলে দেওয়া হয়েছে অ্যাসাইনমেন্ট ও পাঠ মূল্যায়নের মাধ্যমে। এরই মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে আটকে থাকা এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষাও শেষ হয়েছে।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ২০২০ সালে আমরা এসএসসি নিতে পেরেছিলাম কিন্তু এইচএসসি নিতে পারিনি। ২০২১ সালে পরীক্ষা হবে না এরকম নানান অবস্থার মধ্য দিয়ে গেছি। কিন্তু শেষ পর্যন্ত বছরের শেষ দিকে পরিস্থিতি আমাদের পে ছিল বলে করতে (পরীক্ষা নিতে) পেরেছি।

গুজবে কান না দেওয়ার আহবান জানিয়ে তিনি বলেন, আমি একটি কথা বলি, পরীক্ষা নেবে কারা?  পরীক্ষার আয়োজনতো করবে বোর্ডগুলো। শিক্ষা মন্ত্রণালয় যখনই পরীক্ষা হয়, পরীক্ষা আগে কবে হবে সেটাও শিক্ষা  মন্ত্রণালয় বলে। কী করে হবে তাও বলে মন্ত্রণালয়?

পরীক্ষার আগে আমরা সবাইকে নিয়ে বসি। তাই অন্য কে কী বলল? এটা দয়া করে শুনবেন না। সব সময় বলছি গুজবে কান দেবেন না। কাজেই লোকে অনেক চটকদার অনেক কিছু পরিবেশন করে। কাজেই সেগুলো না শুনে বা দেখে, যাদের মূল দায়িত্ব মন্ত্রণালয় ও বোর্ড এ কথা যেন শুনি।

Print Friendly, PDF & Email