ঝিনাইদহে অন্ত:সত্ত্বা নারীকে হত্যার অভিযোগ

0
16
ছবি সংগৃহীত

ঝিনাইদহ প্রতিনিধি

ঝিনাইদহের অন্ত:সত্ত্বা নারীর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। নিহতের বাবার পরিবারে দাবি তাকে হত্যা করার জন্য বিষ খাওয়ানো হয়েছে।

নিহত মরিয়ম খাতুন (৩৮) হরিণাকুন্ডু উপজেলার মান্দিয়া গ্রামের জালাল উদ্দিনের স্ত্রী ও শহরতলির দিগনগর এলাকার ইজ্জত আলীর মেয়ে। সোমবার সকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়। আগের দিন রবিবার সে পারিবারিক কলহের কারনে বিষপাণ করেন। তবে নিহতের স্বজনদের অভিযোগ, জোর করে ওই নারীর স্বামী তার মুখে বিষ ঢেলে দিয়েছে ।

নিহতের ছেলে জিহাদ জানান, রবিবার রাত দেড়টার দিকে মায়ের চিৎকারে সে ঘরে গিয়ে দেখে তার বাবা জোর করে তার মায়ের মুখে পানি ঢালছে। তার দাবি, মাকে তার বাবা বিষ দিয়ে মেরে ফেলেছে। এর আগে তুচ্ছ ঘটনায় বাবা-মায়ের মধ্যে ঝগড়া বিবাদ হতো বলেও জানায় জিহাদ।

আরো পড়ুন – ঈদে বাসের টিকিট ২৪ জুন থেকে

ওই গ্রামের ইউপি সদস্য মাসুদ আলী জানান, ওই নারী অন্ত:সত্ত্বা ছিল। তার স্বামী গর্ভের সন্তানকে নষ্ট করতে প্রায়ই তাকে চাপ দিতেন। এ নিয়ে তাদের মধ্যে কলহের সৃষ্টি হতো বলেও শুনেছি।

থানার ওসি সাইফুল ইসলাম বলেন, এ ব্যাপারে ওই নারীর স্বজনদের পক্ষ থেকে অভিযোগ পেয়েছি। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঝিনাইদহ সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে। রিপোর্ট হাতে পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।