প্রধানমন্ত্রীর উদ্বোধনের মধ্যদিয়ে স্বপ্নের পদ্মা সেতুর যাত্রা

16
পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

দেশবাসীর স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী। এর মধ্য দিয়ে শুরু হলো স্বপ্নের সেতুর যাত্রা। দেশের দণিাঞ্চলের সঙ্গে সড়ক যোগাযোগের নতুন দুয়ার খুললো।

শনিবার বেলা ১২টায় প্রমত্তা পদ্মার বুকে সদ্য নির্মিত বহু কাক্সিক্ষত স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সেতুর উদ্বোধন করতে সকাল ৯টা ৫৫ মিনিটে তিনি হেলিকপ্টারে করে মুন্সীগঞ্জের মাওয়া প্রান্তে পৌঁছান। সেখানে সুধী সমাবেশে বক্তব্য দেন। পর তিনি সেতু উদ্বোধন উপলে স্মারক ডাকটিকেটের উন্মোচন করেন।

ম্বপ্নের পদ্মা সেতু

এখান থেকে তিনি সেতুর উদ্বোধন চত্বরের দিকে যাত্রা করেন। প্রধানমন্ত্রী তার গাড়ির টোল পরিশোধ করেন। পরে সেতুর উদ্বোধন মঞ্চে পৌঁছে দেশ ও জাতির জন্য দোয়া করেন। তিনি সেতুর উদ্বোধনী ফলক উন্মোচন করেন। আর এর মধ্যদিয়ে দণি ও দণি-পশ্চিমাঞ্চলের ১৯টি জেলার সঙ্গে রাজধানী ঢাকাসহ দেশের অপরাপর অংশের সংযোগ, যোগাযোগ ও সম্ভাবনার অনন্ত দুয়ার।

ফলক উন্মোচন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে মঞ্চে আসেন তার মেয়ে সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। আরও আসেন পদ্মা সেতুতে দুর্নীতির অভিযোগ ওঠার পর পদত্যাগে বাধ্য হওয়া সাবেক যোগাযোগ মন্ত্রী সৈয়দ আবুল হোসেন ও মোশাররফ হোসেন ভূঁইঞা।

আরো পড়ুন – খোকসায় আব্দুল মজিদ ফুটবল টুনামেন্টের ফাইনাল অনুষ্ঠিত

উদ্বোধনের পর শেখ হাসিনা সমবেত নেতাকর্মীদের উদ্দেশে শ্লোগানদেন ‘জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু’। সমাবেশস্থলে আসা নেতাকর্মীরা এ সময় সমস্বরে সেই শ্লোগানে কণ্ঠ মেলান। এরপর মেয়ে সায়মা ওয়াজেদকে নিয়ে ফলক মঞ্চে ছবি তুলেন প্রধানমন্ত্রী।

পদ্মা সেতুর ফলক উন্মোচনের পর প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহর পদ্মা সেতুর মাওয়া প্রান্ত থেকে শরীয়তপুরের জাজিরা প্রান্তে রওনা হন। পথিমধ্যে তার গাড়িবহর থেমে যায় সেতু। তখন বিমান বাহিনীর একটি চৌকস দল আকাশে বর্ণিল মহড়া করে। প্রধানমন্ত্রী তার সফরসঙ্গীদের নিয়ে সেই মহড়া উপভোগ করেন। পরে প্রধানমন্ত্রী মাদারীপুরের কাঠালবাড়ি মাঠে এক জনসভায় ভাষণ দেন।

Print Friendly, PDF & Email