কুমারখালীতে প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত

0
15
প্রতিপক্ষের হামলায় আহত সেলিম। কুমারখালী হাসপাতাল থেকে তোলা ছবি। মারা যাওয়ার আগে।

কুমারখালী প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত সেলিম (৪৫) মারা গেছেন।

সোমবার সকাল ১১ টা ১০ মিনিটের দিকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে নেওয়ার পথে তিনি মারা যান।

নিহত সেলিম উপজেলার সদকী ইউনিয়নের চরপাড়া গ্রামের মৃত সেকেন আলীর ছেলে। তিনি পেশায় একজন ভাটা শ্রমিক ছিলেন। তিনি একই এলাকার হুমায়ন মন্ডল (৪৪) হত্যা মামলার আসামীও ছিলেন।

নিহতের পরিবার সুত্রে জানা গেছে, সোমবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সেলিম ভাটায় কাজে যাচ্ছিলেন। এসময় প্রতিপরে বেশ কয়েকজন ধারালো অস্ত্র দিয়ে তার উপর হামলা করে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। পরে আহতের স্বজন ও স্থানীয়রা তাঁকে উদ্ধার করে কুমারখালী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যান। তাঁর অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চিকিৎসক তাঁকে দ্রæত কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থান্তর করে। সেখানে নেওয়ার পথের মধ্যে তিনি মারা যান।

সেলিমের মৃত্যু খবর এলাকায় ছড়িয়ে পরলে উত্তেজনা বিরাজ করছে। এলাকায় আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

সদকী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মিনহাজুল আবেদীন দ্বীপ বলেন, জমি সংক্রন্ত বিরোধের জেরে ২০২০ সালে একজন খুন হয়েছিল। সেলিম সেই মামলার আসামী ছিল। প্রতিপরা তাঁকে কুপিয়ে আহত করে। পরে তিনি মারা যান।

কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগের চিকিৎসারা বলেন, হাসপাতালে আসার আগেই সেলিমের মৃত্যু হয়েছে। ১১টা ১০ মিনিটের দিকে তাকে হাসপাতালে আনার পরে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

আরো পড়ুন – এসএসসির রুটিন প্রকাশ, ১৬ দিনে পরীক্ষা শেষ

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, নিহত সেলিম একটি হত্যা মামলার আসামি ছিলেন। প্রতিপরা সোমবার সকালে তাঁকে কুপিয়ে হত্যা করেছে। লাশ মর্গে পাঠানো হয়েছে। এলাকায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।