কুষ্টিয়ায় পৃথক দুটি মৃতদেহ উদ্ধার

0
16

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে অজ্ঞাত এক বৃদ্ধের মরদেহ ও ভেড়ামারা এলাকা থেকে একটি রং কোম্পানীর নিখোঁজ এরিয়া ম্যানেজারের মৃতদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার সকালে কুমারখালীর চড়াইকোল আলাউদ্দিন নগর এলাকা থেকে বৃদ্ধ ও ভেড়ামারা সদরের পাইলট স্কুলের গলি থেকে রক্সি পেন্টের নিখোঁজ এরিয়া ম্যানেজার লোকমান হোসেনের (৩৬) বস্তাবন্দী লাশ পুলিশ উদ্ধার করে।

স্থানীয়রা জানান, সকালে কুষ্টিয়া রাজবাড়ী আঞ্চলিক মহাসড়কের আলাউদ্দিন নগরে একটি ইলেক্ট্রিক পোলের গোড়ায় আনুমানিক (৬৫) বছর বয়সি অজ্ঞাত ওই ব্যক্তির মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়া হয়। পরবর্তীতে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে অজ্ঞাত ওই ব্যক্তির মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য মর্গে পাঠায়।

চড়াইকোল আলাউদ্দিন নগর বাজারের নৈশ প্রহরী আনোয়ার হোসেন জানান, রাত সাড়ে তিনটার দিকে পানি পানি বলে চিৎকার করতে করতে তৃষ্ণার্থ এক ব্যক্তি তার দিকে এগিয়ে আসলে তিনি পানি মুখে দেওয়ার আগেই তিনি মারা যান।

কুমারখালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কামরুজ্জামান তালুকদার জানান, অজ্ঞাত এক বৃদ্ধের মরদেহ উদ্ধার করে মর্গে পাঠানো হয়েছে। এখনো পর্যন্ত লাশের পরিচয় জানা যায়নি।

আরো খবর – শৈলকুপায় প্রতিপক্ষের ৮ বাড়িতে হামলা, নারীসহ আহত ১০

অপর দিকে ভেড়ামারায় নিখোঁজের দুইদিন পর রক্সি পেন্টের এরিয়া ম্যানেজার লোকমান হোসেনের (৩৬) বস্তাবন্দী লাশ পুলিশ উদ্ধার করেছে। বুধবার সকাল ১০টার দিকে ভেড়ামারা পাইলট হাইস্কুলের গলি থেকে তার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। নিহত লোকমান হোসেন বাগেরহাট জেলার সাইদুর রহমানের ছেলে। তিনি রং কোম্পানী রক্সি পেন্টের কুষ্টিয়ার এরিয়া ম্যানেজার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। কুষ্টিয়া শহরের চৌড়হাঁস মোড় এলাকায় তিনি বাসা ভাড়া নিয়ে পরিবারসহ বসবাস করতেন।

ভেড়ামারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মজিবুর রহমান জানান, গত ১ জুলাই দুপুরে রক্সি পেন্টের এরিয়া ম্যানেজার লোকমান হোসেন ভেড়ামারা শহর থেকে নিখোঁজ হন। পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করেও তার সন্ধান না পাওয়ায় ওই দিন সন্ধ্যায় তার স্ত্রী জিনাত আরা টুম্পা ভেড়ামারা থানায় একটি সাধারন ডায়েরী করেন।

ওসি আরো জানান, কারা কি কারণে তাকে হত্যা করেছে এ বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।