কুমারখালীতে সন্ত্রাসীকে গণপিটুনীর পর কুপিয়ে জখম

0
17
আহত সন্ত্রাসী আব্দুল আলীম প্রামাণিক

কুমারখালী প্রতিনিধি

কুমারখালীতে অসামাজিক কাজে লিপ্ত অবস্থায় ধরাপরা চিহ্নি‎ত সন্ত্রাসী ও চরমপন্থি আব্দুল আলীম প্রামাণিক (৩৭) কে গণপিটুনির পর কুপিয়ে জখম করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

গত রবিবার রাত ১১ টার দিকে উপজেলার জগন্নাথপুর ইউনিয়নের দয়রামপুর গ্রামের সরদার পাড়ায় এ ঘটনা ঘটে। সন্ত্রাসী আলীম এলাকার বিলাই প্রামাণিকের ছেলে। তাঁর হাত ও পায়ের রগ কেটে দেওয়া হয়েছে।

স্থানীয়দের মাধ্যমে পুলিশ খবর পেয়ে তাঁকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়। তাঁর মাথায় ও শরীরে গুরুত্বর জখম রয়েছে। এছাড়াও তাঁর পেটে আগুন দিয়ে পোড়ানোর ত রয়েছে। সোমবার সকালে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করা হয়। বর্তমানে তিনি ঢাকায় চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয়রা বলছেন, পরকীয়া করতে এসে গ্রামবাসীর কাছে ধরা পড়ে আলিম। এসময় গ্রামবাসী তাঁকে পিটিয়েছে। তবে আহতের স্বজনরা দাবি করছেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপরা আলীমকে ডেকে নিয়ে যায় এবং হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিটের পর এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেছেন।

জানা গেছে, দয়রামপুর সর্দার পাড়ার এক প্রবাসীর স্ত্রীর সাথে আলীমের পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। রবিবার রাতে আলীম সেই প্রবাসীর স্ত্রীর ঘরে প্রবেশ করে এবং অবৈধ কার্যকালাপে লিপ্ত হয়। এসময় প্রতিবেশীরা টের পেয়ে আলীমকে গণপিটুনিসহ ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। পরে তার শরীর আগুন দিয়ে পুড়িয়ে দেয়। এরপর খবর পেয়ে আহত অবস্থায় আলীমকে সড়কের পাশ থেকে উদ্ধার করে পুলিশ।

সন্ত্রাসী আলীমের ভাতিজি সম্পা খাতুন বলেন, পূর্ব শত্রুতার জেরে প্রতিপরা আমার চাচাকে ডেকে নিয়ে যায় এবং হত্যার উদ্দেশ্যে মারপিটের পর এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করেছে। তিনি এখন ঢাকা মেডিকেলে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তাঁর অবস্থা খুবই খারাপ।

আরো পড়ুন – ঝিনাইদহে প্রকাশ্যে কাঁচিদিয়ে কুপিয়ে আলমসাধু চালককে হত্যা

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, পরকীয়া প্রেম সংক্রান্ত এ ঘটনা ঘটতে পারে। তিনি চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এক সময়ে তাঁর বিরুদ্ধে অস্ত্রসহ বিভিন্ন মামলা ছিল। এখন পর্যন্ত লিখিত কোনো অভিযোগ পাওয়া যায়নি।