কুমারখালীতে আ.লীগ কার্যালয়ের সামনে পাওয়া গেলো

0
28

বোমা, কাফনের কাপড় আর হুমকীর চিঠি

কুমারখালী প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর কয়া ইউনিয়নের ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয়ের সামনে থেকে কাফনের কাপড়, ককটেল বোমা সাদৃশ্য একটি কৌটা, বিস্ফরিত বোমার একাংশ ও হাতে লেখা একটি চিঠি জব্দ করেছে পুলিশ।

সোমবার সকালে চর বানিয়াপাড়া বাজার এলাকার ৪ নং ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যালয় এলাকা থেকে পুলিশ এগুলো জব্দ করে। কিন্তু কারা কাকে উদ্দেশ্য করে এগুলো রেখে গেছে তা এখনো জানা যায়নি।

ইউপি চেয়ারম্যান জানান, একদল দুষ্কৃতকারী এলাকার শান্তি বিনষ্ট ও আতঙ্ক সৃষ্টি করার ল্েয এমন অপকর্ম করতে পারে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় চরম আতঙ্ক ও উত্তেজনা বিরাজ করছে।

জব্দ করা চিঠিতে লেখা রয়েছে, ‘তোরা যখন এলাকায় ছিলিনি তখন সব ঠিকঠাক ছিলো। কিন্তু তোরা যা করছিস তা ঠিকনা। আজ নমুনা দিয়ে গেলাম। ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে তোর জন্য বেশিনা দুটো গুলিই যথেষ্ট। যা তুই উপহার পাবি। আর কাফনের কাপড়টা ঠিক করে রাখিস। যা তোর কাজে লাগবে। সাবধান, সাবধান, সাবধান।’

সোমবার বেলা ১২ টার দিকে সরেজমিন গেলে স্থানীয়রা জানায়, সকালে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ের সামনে বোমা, চিঠি, কাফনের কাপড় দেখে ইউপি চেয়ারম্যানকে জানানো হয়। পরে খবর পেয়ে পুলিশ এগুলো নিয়ে গেছেন। তবে কারা কি উদ্দেশ্যে এ কাজ করেছে তা জানা যায়নি।

আরো পড়ুন – খোকসা সরকারী ডিগ্রী কলেজের প্রভাষকের কান্ড

স্থানীয় আওয়ামী লীগ কর্মী আক্তার হোসেন বলেন, অফিসটিতে তিনি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বসেন। কে রাতের আধাঁরে অফিসের সামনে কাফনের কাপড়, বোমা, চিঠি রেখে গেছেন তা জানিনা। পুলিশ সেগুলো নিয়ে গেছেন।

ঘটনা স্থলের খুব কাছেই আনিছা খাতুনের বাড়ি। তিনি জানান, রাতে বিকট শব্দ শুনতে পান। ভাবলাম ভ্যানের চাকা ফেঁটে গেছে। পরে সকালে জানতে পারলাম ককটেল বোমা ফেঁটেছে।

এ বিষয়ে কয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলী হোসেন বলেন, আমি শহর আওয়ামী লীগের সাবেক জ্যেষ্ঠ সহ সভাপতি ছিলাম। আমার কর্মীর কার্যালয়ের সামনে এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনা ঘটিয়েছে একদল দুষ্কৃতকারীরা। এলাকার শান্তি নষ্ট ও আতঙ্ক সৃষ্টি করার লে এমন অপকর্ম করতে পারে কেউ।

আরো পড়ুন – প্রেমিকাকে ধর্ষণের ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ায় প্রেমিক আটক

কুমারখালী থানার ওসি কামরুজ্জামান তালুকদার বলেন, চর বানিয়াপাড়া বাজার এলাকা থেকে কাফনের কাপড়, ককটেল বোমা সাদৃশ্য লাল টেপে জড়ানো একটি কৌটা ও হাতে লেখা একটি চিঠি জব্দ করা হয়েছে। বিষয়টি নিয়ে তদন্ত চলছে। পরে বিস্তারিত বলা যাবে।