খোকসায় ছাত্রলীগ সভাপতির ভাই গুলিবিদ্ধ

0
23
গুলিবিদ্ধ ছাত্রলীগ সভাপতির ভাই আওয়াল খান

স্টাফ রিপোর্টার

কুষ্টিয়ার খোকসায় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদের উপ-নির্বাচনের আগে রাতে ছাত্রলীগ সভাপতির ছোট ভাই গুলিবিদ্ধসহ ৩ জন আহত হয়েছেন।

মঙ্গলবার দিনগত রাত সাড়ে ৯টার পর উপজেলা শোমসপুর ইউনিয়নের চকহরিপুর গ্রামে এ হামলা ও পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে।

এ হামলায় আওয়াল খান কমল গুলিবিদ্ধ হন। তিনি উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি শিমুল খানের ছোট ভাই। তার বাবার নাম আবু বক্কর খান। এ ছাড়া প্রতিপক্ষের মজনু (৩৫) পিতা মৃত জাফর ও সোহেল শেখ (৪০) পিতা মহম্মদ আলী গুরুতর জখম হয়। আহতদের উভয়ের বাড়ি শোমসপুর গ্রামে। পরে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে এলাকা জুড়ে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

আহত নৌকা প্রতিকের কর্মী মজনু ও সোহেল

স্থানীয়রা গুলিবিদ্ধসহ অন্যদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে আসে। আহত ছাত্রলীগ নেতার ভাই আওয়ালের অবস্থা আশঙ্কা জনক হওয়ায় তাকে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ছাত্রলীগ সভাপতি শিমুন জানান, রাতে তারা দুই ভাই মাসালিয়া বাজার থেকে বাড়ি ফিরছিলেন। পথমধ্যে জয়ন্তী হাজরার চেয়ারম্যান সকিব খান টিপুর নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা তাদের উপর হামলা চালায়। এ সময় তারা দুই ভাই দৌড়ে পালতে চেষ্টা করে। সন্ত্রাসীদের ছোড়া গুলি তার ভাই আওয়ালের গলার বাম পাশে বিদ্ধ হয়। পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরী বিভাগে নিয়ে যায়। পরে তাকে কুষ্টিয়া জেনালের হাসপাতালে স্থানান্তর করে।

অপর আহত মজনুর বাবা মহম্মদ আলী দাবি করেন আহতরা স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাদের সাথে নৌকা প্রতিকের ভোট চাইতে চকহরিপুর গ্রামে যায়। এ সময় শিমুলের লোকেরা তাদের উপর হামলা করে।

জয়ন্ত্রীহাজরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সকিব খান টিপু দাবি করেন, রাতে যখন চকহরিপুরে হামলা পাল্টা হামলার ঘটনা ঘটে তখন তিনি ঘটনা স্থল থেকে প্রায় তিন কিলোমিটার দূরে জয়ন্তীহাজরা বাজারের পাটি অফিসে ছিলেন। তিনি দাবি করেন, ছাত্রলীগ সভাপতি নৌকার বিরুদ্ধে নির্বাচন করছিলেন। এ নিয়ে এলাকাবাসী তার উপর ক্ষুদ্ধ। এ নিয়ে একটি ঘটনা ঘটেছে বলে শুনেছেন।

উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ কামরুজ্জামান জানান, গুলিবিদ্ধ আওয়ালের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার বøাড পেসার কমে যাচ্ছে। শ্বাস কষ্ট হচ্ছে। অন্যদের অবস্থাও গুরুতর। তাদের সবাইকে কুষ্টিয়া রেফার্ড করা হয়েছে।

আরো পড়ুন – ঝিনাইদহে কিশোরীদের কাবাডি প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত

থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আশিকুর রহমান জানান, চকহরিপুরে গ্রামে যে গুলিবিদ্ধ হয়েছে সে ঘোড়া মার্কা প্রতিকের কর্মী। অপর আহতরা নৌকা প্রতিকের প্রার্থীর কর্মী। আহতরা সবাই কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধিন। এলাকায় পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। আসামীদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।