কুষ্টিয়ায় নিজের ঘরে স্কুল শিক্ষিকাকে কুঁপিয়ে হত্যা

0
14

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ায় শহরতলীর হাউজিং এ নিজের বাড়ির শোবার ঘরে জিলা স্কুলেরর ইংরেজী শিক্ষিকাকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা।

রবিবার বেলা ১১ টার দিকে হাউজিং ডি বøকের ২৮৫ নং বাসার শোবার করে বিছানার ওপর থেকে রোকশানা খানম রুনা (৫২) নামের ওই স্কুল শিক্ষিকার লাশ পুলিশ উদ্ধার করে। রোকশানা খানম কুষ্টিয়া জিলা স্কুলের ইংরেজী বিষয়ের সিনিয়র শিক্ষিকা ছিলেন। তাঁর স্বামী খন্দকার মোস্তাফিজুর রহমান এলজিইডি’র যশোর চৌগাছার হিসাব রক হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

পুলিশ জানায়, ছয় তলা বিশিষ্ট বাড়িটি ওই শিকিার নিজের। নি:সন্তান ওই শিক্ষিকা দ্বিতীয় তলায় বসবাস করতেন। ওই বাসার ৪র্থ তলায় থাকতেন ওই শিকিার মৃত ভাই এ কে এম নূরে আসলামের পরিবার।

ভাতিজা নওরোজ কবির নিশাত জানান, সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে ফুপু (রোকশানা খানম) কে তারা ডাকতে গিয়ে দেখেন দরজা ভেতর থেকে বন্ধ করা। অনেক ডাকাডাকি করার পরও দরজা না খোলায় তারা ৯৯৯ ফোন করে বিষয়টি জানালে পুলিশ তাদেরকে দরজা ভেঙ্গে ফেলার জন্য বলে। দরজা ভেঙ্গে ঘরের ভিতরে প্রবেশ করেন। দোতালার দণি পাশের শয়ন করে বিছানার ওপর কাত হয়ে রক্তাক্ত অবস্থায় ফুপুর মরদেহ দেখতে পান। মাথায় জখমের চিহ্ন। ওই ঘরের আসবাব-পত্র, কাপড়-চোপড়, ড্রয়ার সব কিছু ছড়ানো-ছিটানো অবস্থায় মেঝেতে পড়ে রয়েছে।

কুষ্টিয়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দেলোয়ার হোসেন খাঁন জানান, প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে এটি একটি হত্যাকান্ড। তবে কারা কী উদ্দেশ্যে ওই শিক্ষিকাকে হত্যা করেছে এ বিষয়টি এখনো স্পষ্ট নয়। দুর্বৃত্তরা দোতালার বারান্দার দরজা ভেঙ্গে ওই বাড়িতে প্রবেশ করে এবং হত্যাকান্ড শেষে আবার ওই দরজা দিয়েই পালিয়ে যায়। সার্বিক বিষয় পুলিশ তদন্ত করে দেখছে।

আরো পড়ুন – ঝিনাইদহে বিএনপি ও ছাত্রলীগের সংঘর্ষ

কুষ্টিয়া জিলা স্কুলের প্রধান শিক (ভারপ্রাপ্ত) এফতে খাইরুল ইসলাম বলেন, রোকশানা খানম ভালো শিক্ষিকা হবার পাশাপাশি তিনি একজন ভালো মানুষ ছিলেন। তাঁর কোন শত্রু থাকতে পারে এটা আমার বিশ্বাস হয়না। শিকা রোকশানা খানমের হত্যাকারীদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।