বাজেট আলোচনায় গণমাধ্যমের কর ভ্যাট কমানো দরকার মন্তব্য ইনু’র

0
24
in-dro-23-p-1-compressed
সংগৃহিত ছবি

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

প্রস্তাবিত বাজেটের উপর আলোচনায় অংশ নিয়ে সাবেক তথ্যমন্ত্রী ও জাসদের সভাপতি হাসানুল হক ইনু গনমাধ্যম ধুকছে বলে মন্তব্য করেছেন। করোনা পরিস্থিতির কারনে গনমাধ্যমের চলমান অচলাবস্তা দূর করতে এই শিল্পের উপর আরোপিত কর ভ্যাট কমানোর প্রস্তাব করেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে ২০২০-২১ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর আলোচনায় অংশ নিয়ে বাজেটে বিভিন্ন খাতের বরাদ্দের সমালোচনা করে জাসদ সভাপতি বলেন, অর্থমন্ত্রী অগ্রাধিকার নির্ণয় করলেও খাতভিত্তিক বরাদ্দ গতানুগতিক। স্বাস্থ্যসেবায় নতুন দিগন্তের উন্মোচন করবে এমন কোন বরাদ্দ নেই। নতুন দরিদ্র ও নতুন কর্মহারা ২৬ লাখ লোকের জন্য কোনো নির্দেশনা নেই। রাজস্ব খাত, ব্যাংকিং খাত ও পুঁজিবাজার সংস্কারের দাবির বিষয়ে কোনো বক্তব্য নেই।

সাবেক তথ্যমন্ত্রী ও জাসদ সভাপতি বলেন, সংবাদ পত্রের উপর থেকে করর্পোরেট কর ২৫ শতাংশ থেকে ১০ শতাংশে নামাতে হবে। নিউজপ্রিন্টের ওপর থেকে ভ্যাট কমিয়ে ৫ শতাংশ করতে হবে। বিজ্ঞাপন আয়ের উৎস কর ২ শতাংশ করতে হবে। এ শিল্পের কাঁচামালের ওপর আবগারি শুল্ক শূন্য করতে হবে। টেলিকম সেক্টরে মোবাইলের ওপর ৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক সম্পূর্ণ প্রত্যাহার করতে হবে। ইন্টারনেটের ওপরের ১৫ শতাংশ ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে।

জাসদ সভাপতি বলেন, দেশে এখন অস্বাভাবিক সময় যাচ্ছে। করোনা মোকাবিলায় ১০ হাজার কোটি টাকার থোক বরাদ্দ এবং প্রধানমন্ত্রীর ১ লাখ ৫ হাজার কোটি টাকার বিশেষ প্রণোদনা প্যাকেজ ছাড়া বাজেটের বিভিন্ন খাতে বরাদ্দ গতানুগতিক, গৎবাঁধা এবং ছকের মধ্যে সীমাবদ্ধ। এবার দরকার ছিল ছকের বাইরে একটা বাজেট।

আরও পড়ুন

করোনার মধ্যেও উন্নয়ন অব্যাহত রাখার চেষ্টা করছি- প্রধানমন্ত্রী

সাবেক এই মন্ত্রী সরকারকে উদ্দেশ করে বলেন, করোনা পুষে রেখে অর্থনীতি সচল হবে না। দুর্নীতি পুষে রেখে করোনা মোকাবিলা ও অর্থনীতি সচল করা যাবে না। স্বচ্ছতা, সমন্বয়হীনতা ও অদক্ষতা দূর করে সুশাসন কায়েম করতে হবে।