নানার বিরোধে প্রাণ গেল নাতনীর

12
নিহত অনিকার সংগৃহিত ছবি

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

নানার জমি নিয়ে বিরোধের জেরে খুন হলো ছয় বছরের শিশু আনিকা। প্রতিবেশিরা তাকে নৃশংসভাবে কুপিয়ে হত্যা করেছে। এ সময় গুরুতর আহত হয় মিথি নামের আট বছরের অন্য এক শিশু।

রবিবার সকালে কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর উপজেলায় শাহেদল ইউনিয়নের গলাচিপা গ্রামে এ নৃশংস হত্যার ঘটনা ঘটে। উক্ত ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ।

পুলিশ সূত্র জানায়, হোসেনপুর উপজেলার শাহেদল গলাচিপা গ্রামের আবু সাইদের ছেলে সিরাজ মিয়ার সাথে একই গ্রামের নূর ইসলাম ও ওসমানের জমি নিয়ে দীর্ঘদিনের বিরোধ ছিল।

রবিবার সকাল ১০টার দিকে বিষয়টি নিষ্পত্তির লক্ষ্যে এলাকার বাজারে সালিশ বৈঠক বসবার কথা ছিল। একই দিন সকাল ৮টার দিকে নানা বাড়িতে বেড়াতে আসে ছয বছরের শিশু আনিকা। সে বীরপাইকশা গ্রামের আলমগীর হোসেনের মেয়ে। নানা বাড়ির সামনের জায়গায় খেলার সময় পাশের বাড়ির অন্য এক শিশুর সঙ্গে আনিকার ঝগড়া হয়।

আরও দেখুন- করোনায় থেমে গেল গো খামারিদের স্বপ্ন

শিশুদের ঝগড়ার সূত্র ধরে ধারালো দা দিয়ে ওসমানের নাতনি আনিকা ও আট বছরের মেয়ে মিথিকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করেন সিরাজ মিয়া। স্থানীয়রা আশঙ্কাজনক অবস্থায় শিশুদের উদ্ধার করে কিশোরগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে যায়। তবে হাসপাতালে পৌঁছানোর আগেই শিশু আনিকা মারা যায়। তবে আহত মিথিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

স্থানীয়দের সংবাদের ভিত্তিতে হোসেনপুর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সোনাহর আলীসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থলে গিয়েছিলেন। হোসেনপুর থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ মোস্তাফিজুর রহমান ঘটনার সতত্যা নিশ্চিত করে বলেন, জমির বিরোধ নিয়ে শিশুটিকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, এ হত্যার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনার আসামী সিরাজ মিয়াকে আটক করা হয়েছে।

Print Friendly, PDF & Email