কুষ্টিয়ার পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ ৪ জন

0
27
নৌকাডুবির প্রতিকি ছবি

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি

কুষ্টিয়ার কুমারখালীর পদ্মা নদীতে নৌকাডুবির ঘটনায় ৪ জন নিখোঁজের খবর পাওয়া গেছে। একই ঘটনায় আরও ৯ জনকে অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করেছে স্থানীয়রা।

মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে নদী সংলগ্ন সাদিপুর ইউনিয়নের ঘোষপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

নৌকাডুবির ঘটনায় নিখোঁজ রয়েছেন- ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের জামালপুর গ্রামের হারান শেখের ছেলে জুয়েল (৩০), নজু’র ছেলে জাকির (২৫), জলিলের ছেলে শরিফুল (৩১) ও রঞ্জিতের ছেলে জুবা (৩২)।

আরও দেখুনএন্ড্রু কিশোর না ফেরার দেশে

এ ঘটনায় উদ্ধারকৃত ব্যক্তিরা হলেন একই এলাকার তুকা প্রামাণিকের ছেলে জহির (৩৩), কটার ছেলে বিপুল (৩০), আমজাদের ছেলে বকুল (৪০), শাহজামালের ছেলে সাজু (৩৫), ফজলের ছেলে তদে (৩২), আগা’র ছেলে সুলতান (৩০), মানিকের ছেলে মনসুর (৩২),খবিরের ছেলে জামিন (৩০) এবং শামিমের ছেলে রিফাত (১৫)। এরা সকলেই পেশায় দিনমজুর।

জানা গেছে, ভেড়ামারা উপজেলার বাহাদুরপুর ইউনিয়নের জামালপুর থেকে ইঞ্জিল চালিত করিমনে কুমারখালীর ঘোষপুর আসে তারা। পরে পদ্মা নদী পাড় হতে দুইটি ডোঙা নৌকায় ওঠে তারা। উলু ঘাস কাঁটাতে চরে যাচ্ছিল এই ১৩ জন দিনমজুর। একটি ডোঙ্গা নৌকাতে ছিল ৯ জন এবং অপর একটিতে ছিল ৪ জন। নদীর কুল থেকে একটু দুরে গেলেই পানির প্রবল ¯্রােতে নৌকা দুটি ডুবে যায়। এ ঘটনায় ৯ জন সাঁতার দিয়ে নদীর কুলে ফিরে এসে অসুস্থ হয়ে পড়লেও অপরদিকেএখনও নিখোঁজ রয়েছে ৪ জন।

আরও দেখুন করোনায় থেমে গেল গো খামারিদের স্বপ্ন

সাদিপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান তোফাজ্জেল হোসেন দ্রোহকে বলেন, তারা ডোঙা নৌকায় করে পদ্মা নদী পাড়ি দিয়ে চরে উলু ঘাস কাঁটতে যাবার সময় দুইটি নৌকা দুটি ডুবে যায়। উদ্ধারকৃতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ায় সুস্থ হয়ে উঠেছে এবং এরা সবাই ভেড়ামারা উপজেলার জামালপুরের বাসিন্দা। তিনি আরও জানান, নিখোঁজ ব্যক্তিদের উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিস কে খবর দেওয়া হয়েছে।

কুমারখালী ফায়ার সার্ভিসের কর্মকর্তা অমিয় কুমার বিশ্বাস জানান,সাদিপুর একটি রিমোর্ট এলাকা হওয়ায় আমরা এখনও ঘটনাস্থলে পৌছাতে পারিনি, তবে পাবনার ফায়ার সার্ভিস দল কাজ করছে।