কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের প্রয়াণদিবস

0
41
Humayon-Dro-19-7-p-1
কথা সাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ফাইল ছবি

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

বাংলা সাহিত্যের অত্যন্ত জনপ্রিয় একজন কথা সাহিত্যিক এবং চলচ্চিত্রকার হুমায়ূন আহমেদের মহাপ্রস্থানের ৮ বছর পূর্ণ হলো আজ (রবিবার)। এ উপলক্ষে হুমায়ূনতীর্থ নুহাশপল্লীতে এতিম ও অনাথ শিশুদের খাওয়ানো হবে কবির পছন্দের খাবার। পিরুজালী এবং এর আশপাশের এতিমখানার সাড়ে তিনশ’  নিমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। দেশের বাইরে থাকায় উপস্থিত থাকতে পারছেন না হুমায়ূন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন এবং তার দুই ছেলে নিষাদ হুমায়ূন ও নিনিত হুমায়ূন। তবে কবির বন্ধুবান্ধব, স্বজনরা থাকবেন অনুষ্ঠানে।

হুমায়ূন আহমেদ ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার মোহনগঞ্জে জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর বাবার নাম ফয়েজুর রহমান, মা আয়েশা ফয়েজ। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াকালীন সময়ে তাঁর লেখালেখির শুরু। ১৯৭২ সালে প্রকাশিত হয় তাঁর প্রথম উপন্যাস নন্দিত নরকে। ১৯৭৪ সালে প্রকাশিত হয় দ্বিতীয় উপন্যাস শঙ্খনীল কারাগার। বই দুটি প্রকাশের পর শক্তিশালী লেখক হিসেবে পাঠকমহলে সমাদৃত হন তিনি।

উপন্যাসে নিজের প্রতিভার বিস্তার ঘটালেও হুমায়ূন আহমেদের শুরু কবিতা দিয়ে। এরপর নাটক, শিশুসাহিত্য, বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনি, চলচ্চিত্র পরিচালনা থেকে শিল্প-সাহিত্যের প্রতিটি ক্ষেত্রেই তিনি রেখেছেন প্রতিভা ও সাফল্যের স্বাক্ষর। তিনি বাংলাদেশে বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনির জনকও বটে। তার পরিচালিত চলচ্চিত্রের মধ্যে রয়েছে- আগুনের পরশমণি, শ্যামল ছায়া, শ্রাবণ মেঘের দিন, ঘেটুপুত্র কমলা ইত্যাদি। টিভি নাট্যকার হিসেবেও তিনি ছিলেন জনপ্রিয়। আশির দশকের মাঝামাঝি তার প্রথম টিভি নাটক ‘এইসব দিনরাত্রি’ তাকে এনে দেয় ব্যাপক জনপ্রিয়তা।

আরও দেখুন-খোকসার ভ্যান চালক নিজের টাকায় গড়ে দিলেন সেতু

তার ডাকনাম কাজল। বাবা একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে শহীদ পুলিশ কর্মকর্তা ফয়জুর রহমান আহমেদ ও মা আয়েশা ফয়েজের প্রথম সন্তান তিনি। তিন ভাই ও দুই বোনের মধ্যে তিনি সবার বড়। খ্যাতিমান লেখক অধ্যাপক মুহম্মদ জাফর ইকবাল তার ছোট ভাই। সবার ছোট ভাই আহসান হাবীব নামকরা কার্টুনিস্ট ও রম্য লেখক।

হুমায়ূন আহমেদ শিক্ষকতাও করেছেন। কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রভাষক ছিলেন। পরে যোগ দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে। লেখালেখিকে পেশা হিসেবে গ্রহণ করে শিক্ষকতা থেকে অবসর নেন। সাহিত্যে অবদানের জন্য হুমায়ূন আহমেদ একুশে পদক, বাংলা একাডেমি পুরস্কার, লেখক শিবির পুরস্কার, মাইকেল মধুসূদন পদকসহ অনেক পুরস্কার লাভ করেন।

জনপ্রিয় এই লেখক ক্যানসারে ভুগে ২০১২ সালের এই দিনে যুক্তরাষ্ট্রের একটি হাসপাতালে মৃত্যুবরণ করেন।

লেখকের গ্রামের বাড়ি কেন্দুয়ার কুতুবপুরে তাঁর হাতে গড়া শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শহীদ স্মৃতি বিদ্যাপীঠে সকাল ১০টায় বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে লেখকের প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে।