ইবির উপাচার্য পদে লবিংয়ের দৌড়ে ১১ শিক্ষক

0
18
ইবির-উপাচার্য-হতে-লবিংয়ে-১১-শিক্ষক
ইসলামি বিশ্ববিদ্যালয়

ইবি প্রতিনিধি

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের বর্তমান উপাচার্য ও কোষাধ্যক্ষের মেয়াদ চলতি মাসের ২০ আগস্ট পূর্ণ হবে। গুরুত্বপূর্ণ এই দুই পদে নতুন কারা আসছেন তা নিয়ে এরই মধ্যে শুরু হয়েছে নানা গুঞ্জন।

জানা গেছে, এ পদের জন্য ইবি ও বাইরের বিশ্ববিদ্যালয়ের ১১ শিক্ষক লবিং করছেন। এ দিকে কোষাধ্যক্ষ পদের জন্য দৌড়ঝাঁপ করছেন ৮ শিক্ষক।

দুই পদের চেয়ারে বসতে আগ্রহী এই শিক্ষকরা বিভিন্ন মাধ্যমে সরকারের উচ্চ মহলে তদবির করছেন। নিজেদের যোগ্যতার প্রমাণ দিতে স্থানীয় এমপি, মন্ত্রী, ইউজিসিসহ সব লবিংয়ে তারা যোগাযোগ চালিয়ে যাচ্ছেন।

২০১৬ সালের ২১ আগস্ট চার বছরের জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য হিসেবে ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক হারুন-উর-রশিদ আসকারী নিয়োগ পান। তার সাথেই কোষাধ্যক্ষ হিসেবে নিয়োগ পান আইন বিভাগের অধ্যাপক সেলিম তোহা। আসকারী প্রথমবারের মতো উপাচার্য পদের মেয়াদ পূর্ণ করতে চলেছেন । আগে ১১ জন উপাচার্য বিভিন্ন অনিয়মের দায়ে পদত্যাগ বা অপসারিত হয়েছেন। দ্বিতীয় মেয়াদে উপাচার্য পদে অধিষ্ঠ থাকতে তিনি সবার সথে তিনিও চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন।

এ ছাড়াও উপাচার্য পদে নিয়োগ পেতে চেষ্টা করছেন বর্তমান উপ-উপাচার্য অধ্যাপক শাহিনুর রহমান। তিনি এ নিয়ে দুই মেয়াদে উপ-উপাচার্যের দায়িত্ব পালন করছেন। তবে ডঃ শাহিন উপাচার্য পদের জন্য লবিংয়ে অনেকটা এগিয়ে আছেন বলে জানা গেছে। এদিকে উপাচার্য হতে চেষ্টা করছেন বর্তমান কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক সেলিম তোহাও।

উপাচার্য পদে আগ্রহী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাবেক উপ-উপাচার্য অধ্যাপক কামাল উদ্দিন, সামাজিক বিজ্ঞান অনুষদের ডিন ও লোক প্রশাসন বিভাগের অধ্যাপক নাসিম বানু, বঙ্গবন্ধু পরিষদের একাংশের সভাপতি অধ্যাপক মাহবুবুর রহমান, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক দুইবারের উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুস সাত্তার।

অপরদিকে, ইবির সাবেক কোষাধ্যক্ষ ও ঢাবির ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্টের সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক আফজাল হোসেন, ইবির সাবেক শিক্ষক ও বর্তমানে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের হিসাববিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক মনিরুজ্জামান, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক সমিতির সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও মার্কেটিং বিভাগের অধ্যাপক শাহ আজম শান্তনু এবং রাবির আরেক শিক্ষক অধ্যাপক পি এম শফিকুল ইসলাম শফিকও উপাচার্য পদের জন্য আগ্রহী।

আরও দেখুন-খোকসায় নতুন তান্ত্রিকের তেলেসমাতি !!

আরও দেখুন-খোকসায় জাতীয় শোক দিবস পালিত

কোষাধ্যক্ষ পদের জন্য জোর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমিতির বর্তমান সভাপতি অধ্যাপক কাজী আখতার, ইসলামের ইতিহাস ও সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক আনোয়ার হোসেন, জীববিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক আনোয়ারুল হক স্বপন, ছাত্র উপদেষ্টা ও বাংলা বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক সাইদুর রহমান,প্রগতিশীল শিক্ষক সংগঠন শাপলা ফোরামের বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক প্রক্টর অধ্যাপক মাহবুবর রহমান, বঙ্গবন্ধু পরিষদের একাংশের সাধারণ সম্পাদক ও ট্যুরিজম অ্যান্ড হসপিটালিটি ম্যানেজমেন্ট বিভাগের চেয়ারম্যান অধ্যাপক মাহবুবুল আরফিন, অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক আলমগীর হোসেন ভূঁইয়া এবং আইন বিভাগের অধ্যাপক শাহজাহান মণ্ডল।