এমসি কলেজে ধর্ষণ: আটক হলো আরেক আসামী

28
Rape-Dro-28
প্রতিকী ছবি

দ্রোহ অনলাইন ডেস্ক

স্বামীকে আটকে রেখে গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার মামলায় রাজন নামে আরেক আসামিকে আটক করেছে র‌্যাব-৯।

রবিবার রাত ১টার দিকে সিলেটের ফেঞ্জুগঞ্জ উপজেলার কচুয়া নয়াটিলা এলাকা থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটককৃত রাজন নয়াটিলা এলাকায় তার এক আত্মীয়ের বাড়িতে আত্মগোপনে ছিলেন। ধর্ষণ মামলার অজ্ঞাত আসামিদের মধ্যে তিনিও একজন। রাজন ছাত্রলীগের কর্মী বলে জানা গেছে।

র‌্যাব-৯ এর একজন কর্মকর্তার ভাষ্যমতে, রাজনকে আত্মগোপনে সহায়তা করায় আইনুল নামে আরেক ব্যক্তিকেও আটক করা হয়েছে। এ পর্যন্ত ধর্ষণের ঘটনায় মোট ৬ জন আটক করা হলো। এর মধ্যে মামলার এজাহারভুক্ত আসামি চারজন। তারেক ও মাসুম নামে এজাহারভুক্ত দুই আসামি এখনও পলাতক রয়েছে।

শুক্রবারের ওই বর্বরোচিত ঘটনার পর ক্ষোভ, নিন্দা আর ধিক্কার জানিয়েছে বিভিন্ন সংগঠন। অবিলম্বে ধর্ষকদের আটকের দাবি জানান সবাই। বন্ধ ক্যাম্পাসে ছাত্রলীগ কর্মীদের থাকতে দেওয়ায় কলেজ কর্তৃপক্ষের দায়িত্বহীনতা নিয়েও প্রশ্ন উঠেছে। শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা বলছেন, ১২৮ বছরের পুরোনো শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানটিতে এমন ন্যক্কারজনক ঘটনায় এক কলঙ্কজনক ইতিহাস সৃষ্টি হলো।

Print Friendly, PDF & Email